Web
Analytics

ডিভোর্সের জন্য কাকে দায়ী করলেন অপু বিশ্বাস?

২২ ফেব্রুয়ারি শাকিব খানের পাঠানো নোটিশের তিন মাস পূর্ণ হচ্ছে। নিয়মানুযায়ী সেদিন থেকেই শাকিব খান আর অপু বিশ্বাসের বহুল আলোচিত সংসারটি ভেঙ্গে যাচ্ছে। এদিকে এর আগেই শাকিবের ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছেন অপু বিশ্বাস। বলেছেন, ‌’আসলে আমার মেনে নেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। আমি অনেক চেষ্টা করেছি শাকিবের সঙ্গে সংসার করতে। বারবার চেষ্টা করার পরও ব্যর্থ হয়েছি। এমনকি সিটি করপোরেশনের সালিশে গিয়েও বলেছি আমি শাকিবের সংসার করতে চাই। কিন্তু কিছু হয়নি।’

কিন্তু কেন ভাঙলো এই সংসার? বার বার ঘুরেফিরে এই প্রশ্নটি সামনে এসেছে। রঙধনুর সঙ্গে সে বিষয়ে মুখ খুলেছেন অপু। বলেছেন- ‌’আসলে এখন আর বলতে দ্বিধা নেই যে, আমার সন্তান জয়ের কারণেই সংসার ভেঙেছে। এই সত্য এখন বাংলাদেশের মানুষ জানে। শাকিব কখনো চায়নি আমার সন্তানের জন্ম হোক। সন্তান বিষয়ে শাকিব আমাকে বারবার বলেছে সন্তান নিলে ডিভোর্স। এই ডিভোর্সের কোনো পরোয়া আমি করিনি। আমি আমার সন্তানের মুখ দেখতে চেয়েছি। ভেবেছি সন্তান এলে সব ঠিক হয়ে যাবে। শাকিবও সব মেনে নেবে।’


নিজের সন্তানরে জন্যই এমন ভাঙন উল্লেখ করে অপু আরো বলেন ‘শাকিব কখনই চায়নি আমার সন্তান আলোর মুখ দেখুক। এখন বাচ্চার জন্য মায়াকান্না দেখাচ্ছে। আমি যখন প্রেগন্যান্ট ছিলাম আমার পাশে কেউ ছিল না। এমনকি বাচ্চার জন্মের পরও আমি একা একা ওকে নিয়ে চলেছি। অন্যের পরিচয়ে ডাক্তার দেখিয়েছি। এসব তো মিথ্যে নয়।’
অপু বলেছেন, সে তার ক্যারিয়ারের জন্য বাচ্চার সাথেও নাটক করছে। আপনারা প্লিজ, তার ক্যারিয়ার দেখে রাখুন। বাচ্চাকে আমি দেখে রাখবো। শাকিবের বয়স এখন ৪০। আমার ছেলের বয়স ১৫ মাস। জয় (ছেলে) বড় হয়ে যখন জানতে পারবে তার জন্মাবার কারণে তার মাকে সংসার ছাড়তে হয়েছে। তখন সে তার বাবাকে কতটুকু সম্মান দিবে?

অারো পড়ুন………..