অবশেষে পাল্টে যাচ্ছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি!

0
127

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল যে জার্সি পরে খেলবে তা সোমবারই উন্মোচিত হয়েছে। ওই দিনই মাশরাফি বিন মুর্তজা-তামিম ইকবালরা সবুজ রঙের জার্সি পরে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ফটোসেশনেও অংশ নেন। কিন্তু ওই জার্সিতে লালের ছোঁয়া না থাকায় টাইগার ভক্তরা গতকাল থেকেই সরব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। অনেকের মতেই, বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সবুজ জার্সিকে আয়ারল্যান্ড কিংবা পাকিস্তান দলের জার্সির মতো মনে হয়েছে! ব্যাপারটি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেরও (বিসিবি) চোখে পড়েছে। যে কারণে বিসিবি মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, জার্সি পাল্টাতে আইসিসিকে জানাবে বিসিবি।

এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জন্য লাল ও সবুজ রঙের দুটি জার্সি রয়েছে। তবে সবুজ জার্সি পরেই বেশি মাঠ মাতাবে মাশরাফির দল। প্রতিপক্ষের জার্সির সঙ্গে রং মিলে গেলে দেখা যাবে লাল জার্সিতে। লাল জার্সির বুকে গাঢ় সবুজ আছে, সেটির ওপর লেখা ‘বাংলাদেশ’। সবুজ জার্সিতে লালের অনুপস্থিতি নিয়েই বেশি প্রশ্ন উঠেছে।

সমালোচনার মুখে পড়লেও হুট করেই তো আর জার্সি পাল্টানো যায় না। ব্যাপারটি বুঝিয়ে দিয়েছেন বিসিবি মিডিয়া কমিটি প্রধান। এজন্য একটা প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘জার্সি বদল করতে আমরা আইসিসিকে জানাব। যেহেতু আগের জার্সির নকশা চূড়ান্ত হয়েছে চাইলেই বদল করা যায় না। একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়।’

জার্সি পাল্টানোর অনুমতি নিতে হবে আইসিসি থেকে। যদি মেলে তখন কেমন হবে টাইগারদের বিশ্বকাপ জার্সির নকশা? এ নিয়ে বিসিবি মিডিয়া কমিটি প্রধান জানিয়েছেন, ‘নকশা কি হবে সেটা আমরা পরে বলতে পারব। তবে যে বিষয়টি নিয়ে কথা উঠেছে, সবুজের মধ্যে লাল রং নেই, আমরা পরিবর্তিত জার্সিতে অবশ্যই লাল রং রাখার চেষ্টা করব।’

বিশ্বকাপে সবুজ জার্সিতে বিসিবি লাল রং রাখতে চেয়েছিল বলেও জানিয়েছেন জালাল ইউনুস,‘আমরা লাল রং রাখতে চেয়েছিলাম। প্রথম নকশায় লাল রং ছিল। নাম ও জার্সি নম্বর লাল রঙের ছিল। আইসিসি বলার পর ওটা সরাতে হয়েছে।’

এবারই প্রথম বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ জার্সি বাজারে সর্বোচ্চ ১১৫০ টাকায় কেনার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। এরইমধ্যে এ জার্সি পৌঁছে গেছে গোটা দেশজুড়ে। এরইমধ্যে জার্সির নকশা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় কিছুটা বিপাকে পড়েছে বিসিবি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here